ঢাকা - নভেম্বর ২৯, ২০২১ : ১৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮

কারসাজিতে দাম বাড়ে পেঁয়াজের

নিউজ ডেস্ক
অক্টোবর ১৮, ২০২১ ১১:৪৮
২৯ বার পঠিত

লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ে ক’দিন আগেও দেশের বাজারে ৭৫-৮০ টাকা খুচরা দরে বিক্রি হয়েছে প্রতি কেজি পেঁয়াজ। দাম বৃদ্ধির আগে এ দর ছিল ৩৫-৪০ টাকা। কয়েকদিনের ব্যবধানে এ দাম বাড়লেও আমদানিতে শুল্ক কমানোর ঘোষণা দেয়ার পর এক দিনের ব্যবধানে সেই পেঁয়াজের দাম কেজিতে কমেছে ১৫ টাকা। আর তাই দাম বৃদ্ধির পেছনে একটি মহলের কারসাজিকে দুষছেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন।

রোববার নিত্যপণ্য সামগ্রীর মজুদ, আমদানি, সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতি নিয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন জসিম উদ্দিন। জানান, আপনা-আপনি পেঁয়াজের দাম আকাশছোঁয়া হয়নি। পেঁয়াজের দাম নির্ধারণে একটা সমস্যা ছিল। দাম বাড়ানোর পেছনে একটি মহল কাজ করেছে। আমদানিতে শুল্ক কমানোর পর ১৫ টাকা কমে যাওয়ার মানে দাঁড়ায়- দাম বাড়ানোর পেছনে কারসাজি ছিল, না হলে এক দিনে এত টাকা দাম কমে না।

কোনো কারসাজির প্রশ্রয় মানা হবে না জানিয়ে ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি বলেন, কোনো সমস্যা থাকলে এফবিসিসিআইকে জানাতে হবে।আলোচনার মাধ্যমে সৃষ্ট সমস্যা সমাধান করা হবে।ব্যবসায় লাভ-লোকসানের হিসাব থাকবে। তাই বলে সুযোগ পেলেই দাম বাড়াবেন- এটা হতে পারে না।

অনুষ্ঠানে পাইকার ও আড়তদার পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা বলেন, আমদানির বড় একটা অংশ ভারত থেকে আসে। সম্প্রতি সেখানে অতিবৃষ্টি ও বন্যায় পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে যাওয়ার প্রভাব পড়েছে দেশের বাজারে। তাছাড়া দোকান ভাড়াসহ ব্যবসা পরিচালনার আনুসাঙ্গিক খরচ বেশি হওয়ায় এলাকাভেদে পেয়াজ ১০-২০ টাকা কম-বেশি হয়। এসব খরচ বৃদ্ধির বিষয়ে সরকারের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলা হবে বলে ব্যবসায়ীদের আশ্বস্ত করেন জসিম উদ্দিন।

এমকে



মন্তব্য