ঢাকা - জুন ১৬, ২০২১ : ২ আষাঢ়, ১৪২৮

মুলধনসহ সুদের জন্য ঋণগ্রহীতার কন্যাসহ বিধবা স্ত্রীকে নির্যাতন

নিউজ ডেস্ক
জুন ০৭, ২০২১ ২১:০১
৭৫ বার পঠিত

জয়পুরহাট প্রতিনিধি

জয়পুরহাটে পাঁচবিবিতে ঋণগ্রহীতার মৃত্যুর চার বছর পরে মুলধনসহ সুদের জন্য তার স্ত্রী ও কন্যাকে নির্যাতন করার অভিযাগ ওঠেছে। এ ঘটনায় ঋণগ্রহীতার মেয়ে রোববার বিকালে থানায় লিখিত অভিযোগপত্র দিয়েছেন।

অভিযোগ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, উপজেলার রহমতপুর গ্রামের গোলজার মন্ডল ১৫/২০জন লোক নিয়ে মটরসাইকেল যোগে একই উপজেলার শুকানপুকুর গ্রামের আ. খালেকের বাড়ীতে যায়। এ সময় আ. খালেকের কাছে পাওনা টাকা পরিশোধের জন্য তার পরিবাকে চাপ দেন তারা।বিষয়টি জানা নেই উল্লেখ করে এ পাওনা পরিশোধে অপারগতা প্রকাশ করেন আ. খালেকের পরিবার। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের ওপর নির্যাতন করা হয়। এ সময় ঘর থেকে নগদ পঁচাত্তর হাজার টাকা, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, এক ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন, কানের দুল ও আংটি কেড়ে নেয়া হয়। আর যাওয়ার পথে ভুক্তভোগীদের হুমকিও দেয়া হয়।গত শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে ঘটে এ ঘটনা। প্রায় ৪ বছর আগে আ. খালেক মারা গেছেন।

গোলজার হোসেন বলেন, “আ: খালেক বেঁচে থাকতে আমার কাছ থেকে ফাঁকা ব্যাংক হিসাবের চেক রেখে ২ লক্ষ ২৬ হাজার টাকা হাওলাত বাবদ নেয়। তা পরিশোধ না করেই মৃত্যুবরণ করে। যা এখন সুদ আসলে ৫ লক্ষ হয়েছে। পাওনা টাকাগুলো তোলার জন্য আ: খালেকের বাসায় কেউ গিয়েছিল কি-না তা আমি জানি না।” পাঁচবিবি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পলাশ চন্দ্র দেব জানান, এ ব্যাপারে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মাহফুজ রহমান/এমকে



মন্তব্য